ঋদ্ধির চোট পেয়ে দেশে ফিরে আসায় হতাশ সিএবি প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলী

চলতি অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে ধারাভাষ্য দিতে তিনি ছিলেন নিউজিল্যান্ড, তবে সরস্বতী পুজোর দিনটা ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী কাটালেন বেহালায় নিজের বাড়িতেই। মেয়ের সঙ্গে বাড়ির পুজোয় সময় কাটাতেই রবিবার গভীর রাত্রে নিউজিল্যান্ডে থেকে কলকাতায় ফেরেন তিনি। তবে ছুটি কাটাতে বাড়ি ফিরলেও রেহাই নেই ব্যস্ততা থেকে। সোমবার সকালেই বাড়ির সরস্বতী পুজোয় যোগ দিয়ে দুপুরের দিকেই তিনি চলে যান ইডেনে। সেখানে তখন বাংলা বনাম উত্তরপ্রদেশের সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফির সুপার লিগের ম্যাচ চলছিল। সেখানেই ম্যাচ দেখেন সৌরভ। দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ভারতের এক নম্বর উইকেটকীপার ঋদ্ধিমান সাহা চোটের কারণে দেশে ফিরে আসা নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেন সৌরভ। চোটের কারণেই দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে মাঝ পথেই দেশে ফিরে আসেন শিলিগুড়ির পাপালি। ঋদ্ধির এই চোটের ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে সিএবি প্রেসিডেন্ট জানান, “ঋদ্ধির জন্য এটা সত্যিই দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা।

ওর জন্য ভীষণই খারাপ লাগছে। নিশ্চই ওর আঘাতটা বেশ গুরুতর, তা না হলে সামান্য চোটে ও দেশে ফিরে আসার ছেলে নয়”। অন্যদিকে ফুটবল নিয়েও কথা বলেন সৌরভ। সৌরভ জানান সনি নর্ডি, উইলিশ প্লাজাদের বাংলার দল ছাড়ার সিদ্ধান্তে তিনি সত্যিই হতাশ হয়েছেন, সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময়েও তার কথায় হতাশাই ঝরে পরে। তিনি বলেন, “ভালো ফুটবলারদের ধরে রাখতে ব্যর্থ বাংলার ক্লাব কর্তারা। পাশাপাশি উন্নত মানের ফুটবলারাও বেশিদিন থাকতে চাইছেন না ক্লাবে। সামগ্রিক দিক থেকে ফুটবলের এই চিত্রটি কিন্তু মোটেও আশাব্যঞ্জক নয়। এতে করে বাংলা তথা ভারতীয় ফুটবলের সার্বিক মানেরই অবনমন ঘটছে”। প্রসঙ্গত মঙ্গলবার অস্ত্রপ্রচারের জন্য আর্জেন্টিনা উড়ে গিয়েছেন সনি।

তবে যাওয়ার আগে তিনি জানিয়ে গিয়েছিন অস্ত্রপ্রচার এবং রিহ্যাব শেষে ফের তিনি মোহনবাগানেই ফিরে আসবেন। অন্যদিকে প্রথম টেস্টে দশ উইকেট নিয়ে ভারতীয় দের মধ্যে উইকেটের পেছনে সবথেকে বেশি শিকার ধরার ক্ষেত্রে মহেন্দ্র সিং ধোনিকে পেছনে ফেলে নতুন রেকর্ড গড়েছিলেন ঋদ্ধি। কিন্তু এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে চোট পান তিনি। ঋদ্ধির চোটের কারণেই দ্বিতীয় টেস্টে তার জায়গায় দলে আসেন পার্থিব প্যাটেল, কিন্তু গ্লাসভ হাতে বেশ কিছু ক্যাচ ছাড়ার পাশাপাশি ব্যাট হাতেও ব্যর্থ হন তিনি।

  • SHARE
    সাংবাদিক, আদ্যন্ত ক্রীড়াপ্রেমী। দ্বিতীয় ডিভিসনে দীর্ঘদিন ক্রিকেট খেলার দরুণ ক্রিকেটের অন্ধ ভক্ত। ব্রায়ান লারা সচিনের অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের বাইরে ব্রাজিলের সমর্থক এবং নেইমার ও মেসির অন্ধ ভক্ত।

    আরও পড়ুন

    বিরাটের কাছেই স্পিন খেলা শিখেছি: স্টিভ স্মিথ

    বিরাটের কাছেই স্পিন খেলা শিখেছি: স্টিভ স্মিথ
    বিশ্ব ক্রিকেটে এই মুহুর্তে তাদের মধ্যে চলছে শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই। তা সত্ত্বেও এই দুজনের মধ্যে একে অপরকে সম্মান...

    তৃতীয় টি২০তে এই তারকার খেলা নিয়ে সন্দেহ

    পিটিআইয়ের একটি রিপোর্টের মোতাবিক তৃতীয় এবং ফাইনাল ওয়ান ডেতে জসপ্রীত বুমরাহের অংশ নেওয়া এখনও সন্দেহজন অবস্থায় রয়েছে।...

    বিশ্বকাপে ভারতীয় স্পিন বিভাগে কারা খেলবেন মুখ খুলনে নির্বাচক প্রধান

    বিশ্বকাপে ভারতীয় স্পিন বিভাগে কারা খেলবেন মুখ খুলনে নির্বাচক প্রধান
    ২০১৯ বিশ্বকাপের বাকি আর মাত্র দেড় বছর। তার আগে গত ২ বছর ধরেই দুরন্ত ফর্মে রয়েছে ভারতীয়...

    অনুষ্কাকে যাবতীয় কৃতিত্ব দিয়ে অবসর নিয়ে মুখ খুললেন কোহলি

    অনুষ্কাকে যাবতীয় কৃতিত্ব দিয়ে অবসর নিয়ে মুখ খুললেন কোহলি
    তার ব্যাটিং প্রতিভা নিয়ে সন্দেহ নেই কারও। সকলেই একবাক্যে স্বীকার করে নিয়েছেন যে তিনি ব্যাটিংয়ের জিনিয়াস। তামাম...

    প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে সদ্য সমাপ্ত একদিনের সিরিজে যে যে রেকর্ড গড়লেন ভারত অধিনায়ক বিরাট

    তার শ্রেষ্ঠত্ব মেনে নিয়েছে ক্রিকেট বিশ্বের সকলেই। বিশ্বের সর্বকালের সেরা একদিনের ক্রিকেটার হিসেবে তাকে মেনেও নিয়েছেন সকলে।...