আবার এক দূর্দান্ত জয়ের পর কী বললেন অধিনায়ক রোহিত শর্মা, তা জানলে অবাক হবেন 1
রোহিত শর্মা

মুম্বই ইন্ডিয়ান্স আইপিএলের বরাবরই এক জনপ্রিয় দল। কিন্তু এই বছর এই দলের অধিনায়ক তথা প্রমুখ ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মা চোট সারিয়ে সদ্য বাইশগজে নেমেছে। আইপিএলের আগে বিজয় হাজারে ট্রফিতে মাঠে নামলেও আগের চেনা ফর্মে তাঁকে দেখা যায়নি। আইপিএলেও এখনও পর্যন্ত ফর্ম নেইও তাঁর। এই কারণেই অনেকেই ভাবতে পারেনি মহারাষ্ট্রের এই দল এমন ধারাবাহিকভাবে প্রদর্শণ করতে পারবে।

আইপিএল ২০১৭ঃ এবিডি ছাড়াও আরও দুজন চোট পেয়ে ছিটকে গেলেন, বললেন আরসিবি কোচ ভেত্তোরি

অধিনায়ক ফর্মে না থাকলেও সেই অভাব পূরণ করে দিয়েছে স্থানীয় ক্রিকেটারা। নীতিশ রানা, ক্রুনাল ও হার্দিক পান্ড্যিয়ার পরপর দারুণ ব্যাটিংয়ের জোড়ে এই ফ্রাঞ্চাইজিকে এখনও পর্যন্ত অপ্রতিরোধ্য দেখাচ্ছে। শেষ ম্যাচে কিংস ইলেভেনের পাহাড় প্রমাণ বেশ অনায়াসেই রান টপকে জেতার পর মুম্বই ইন্ডিয়ান্সদের আত্মবিশ্বাসের স্তর আরও অনেকগুণ বেড়েছে।

বৃহস্পতিবারের এই ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে হাসিম আমলার দূর্দান্ত শতরানে, ১৯৯ রানের লক্ষ্যমাত্রা দেয় পাঞ্জাব। তখনও পাঞ্জাবের এই দল বুঝতে পারেনি, এক সহজ জয় ছিনিয়ে নেবে মুম্বই। পরে ব্যাট করতে নেমে জস বাটলার ও পার্থিব পাটেল বিধ্বংসী ইনিংস শুরু করে। পাওয়ারপ্লে-র ওভারগুলিতে পাঞ্জাবের ফিল্ডারদের একটাই কাজ ছিল বাউন্ডারি থেকে বল কুরিয়ে আনা। এর পর দলের ৮১ রানের মাথায় পার্থিব আউট হলে কিংস ইলেভেন ভেবেছিল তারা ম্যাচে ফিরেছে।

কিন্তু এদিনও নীতিশ রানার দূর্দান্ত ব্যটিংয়ে একটা মুহুর্তের জন্য লড়াইয়ে সমতায় ফিরতে পারেনি গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের দল। মাত্র ৩৪ বলে ৬২ রান করেন রানা। উল্লেখ্য বিষয় এই যে, ২০০ স্ট্রাইক রেটের কাছাকাছি এই রান করতে গিয়ে তিনি একটাও বাউন্ডারি মারেননি। বরং তাঁর ইনিংস জুড়ে ছিল ৭টি পেল্লাই ওভার বাউন্ডারি। এদিকে জস বাটলারও নিজের পরিচিত ফর্মে ছিলেন এদিন। এই বড় রান তাড়া করতে নেমে তিনি একবারের জন্যও মুম্বইয়ের রানরেট নীচে নামতে দেননি। ফলে মাত্র ১৫.৩ ওভারের মধ্যেই এই বড় রান তুলে দেয় মুম্বই।

অসাধারণ এই জয়ের পরে কিছুটা নস্টালজিক হয়ে বিজয়ী অধিনায়ক রোহিত শর্মা বলেন, “এই অসাধারণ ম্যাচের সাক্ষী হতে পেরে ভাল লাগছে। এই ম্যাচ আমাকে ২০১৪ সালের আইপিএলের সেই ম্যাচের কথা মনে করিয়ে দিল, যেদিন আমরা ১৯৫ রান তাড়া করে জিতেছিলাম। তবে মাত্র ১৫ ওভারে এই রান চেজ করাটা অসাধারণ কাজ। হাসিম আমলার অসাধারণ ইনিংসও আমরা ভুলব না। এই নিয়েই ড্রেসিং রুমে আমরা আলোচনা করছিলাম যে মাঠ ছোট এবং ব্যাটিং সহায়ক। তাই আমাদের ব্যাটসম্যানদের বলেছিলাম নিজেদের মতই শট খেলতে। পার্থিব পাটেল অসাধারণ খেলেছে। জস বাটলারও তাঁর পরিচয় মতই শুরু করেছে। বোলাররাও আমাদের প্রত্যাশা মতই বল করেছেন। তাঁদের কাছে এটা সত্যিই চ্যালেঞ্জিং কাজ ছিল যে এই পিচে ব্যাটসম্যানদের সামনে ভাল প্রদর্শণ করা। প্রতিটা ব্যাটসম্যান আসার পরেই তাঁরা নিজেদের মত নতুন পরিকল্পণা করছিল। তবে আমরা যে গতি পেয়েছি সেটা হারাতে চাই না। আমরা সমস্ত দলের কথা একসঙ্গে চিন্তা না করে, শুধুমাত্র যখন যার বিরুদ্ধে খেলছি তাকে নিয়েই ভাবতে চাই।”

http://bengali.sportzwiki.com/5332/sam-billings-said-rishabh-pant-will-replace-dhoni/

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *