আগামি মরশুমের জন্য নতুন নিয়মের ঘোষণা করল ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়ালস ক্রিকেট বোর্ড

আগামি মরশুমের জন্য নতুন নিয়মের ঘোষণা করল ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়ালস ক্রিকেট বোর্ড 1

আসন্ন ২০১৮র মরশুমের জন্য ঘরোয়া ক্রিকেটের চারটি ক্ষেত্রে নতুন নিয়মের ঘোষণা করল ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়ালস ক্রিকেট বোর্ড। ঘরোয়া ক্রিকেটের যে চারটি প্রতিযোগিতায় এই বদল গুলি হবে সেগুলি হল, স্পেসাভার্স কাউন্টি চ্যাম্পিয়নশিপ, রয়্যাল লন্ডন ওয়ান ডে কাপ, ভিটালিটি ব্লাস্ট এবং কিয়া সুপার লিগ। খেলার নিয়মের যে ক্ষেত্রগুলিতে বদল এনেছে ইসিবি সেগুলি হল কোনও চোটগ্রস্থ খেলোয়াড়ের পরিবর্তের ব্যাপারে, প্লেয়ারদের আচরণের ব্যাপারে, ব্যাটের সাইজ এবং মক ফিল্ডিংয়ের ব্যাপারে। ইসিবির তরফে জানানো হয়েছে খেলার মানের উচ্চতা বাড়াতেই এই বদলগুলি আনা হয়েছে, সেই সঙ্গে ইসিবি এই বদলগুলি আনার ক্ষেত্রে প্লেয়ারদের সুরক্ষার বিষয়টিকেও মাথায় রেখেছে। ইসিবির তরফে জানানো হয়েছে যে অ্যাসেজের শেষ টেস্টে জো রুটের অবস্থার কথা মাথায় রেখেই খেলোয়ার পরিবর্তনের বিষয়টি নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত অ্যাসেজের শেষ টেস্তে অতিরিক্ত গরমের ফলে জো রুটের ডিহাড্রেশন হওয়ায় তাকে মাঠ ছেড়ে বেড়িয়ে যেতে হয় এমনকী তাকে হাসপাতালেও নিয়ে যেতে হয়েছিল। যদিও ইসিবি ওই ধরনের পরিস্থিতিকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়েই পরিমাপ করে ওই পরিস্থিতিকে হ্যান্ডেল করার উপায় বের করেছে। এই নতুন নিয়ম অনুযায়ী যে কোনও টিম এমন প্লেয়ারের পরিবর্তে অন্য প্লেয়ার খেলাতে পারবে যার গুরুতর চোট লেগেছে কিংবা চোট লাগার যথেষ্ট সম্ভবনা রয়েছে।

আগামি মরশুমের জন্য নতুন নিয়মের ঘোষণা করল ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়ালস ক্রিকেট বোর্ড 2

শুধু তাই নয় ওই পরিস্থিতিতে সেই পরিবর্ত খেলোয়াড়কে বল বা ব্যাট করারও অনুমতি দেওয়া হবে। যদিও সেই খেলোয়ার বদল নির্ভর করতে প্রত্যেক ম্যাচে উপস্থিত থাকা ক্রিকেটের লিজিয়ন অফিসারের উপর। তিনি ‘যার জন্য যা’ বোঝার পরেই ওই সিদ্ধান্ত নেবেন। যদি কোনও ম্যাচে ক্রিকেট লিজিয়ন অফিসার না থাকেন সেক্ষেত্রে ওই সিদ্ধান্ত নির্ভর করবে ম্যাচের অ্যাম্পায়ারের উপরে। এছাড়াও নতুন ঘোষিত নিয়মে প্লেয়ারদের আচরণের উপর সংশ্লিষ্ট চার লেভেলের অপরাধকে পরিচিত করা হয়েছে ওই আইনের ৪২ নম্বর ধারার অধীনে। ওই আইন অনুযায়ী, “ যদি অ্যাম্পায়ার কোনও খেলোয়াড়কে বিচার করে লেভেল ওয়ান অপরাধের আওতায় পান, তাহলে সেই দল একটি অফিসিয়াল সতর্কবার্তা পাবে, সেই সতর্কবার্তা সেই দলের প্রত্যেক সদস্যের উপরেই বলবত হবে বাকি ম্যাচের জন্য। ফলে বাকি থাকা ম্যাচে যদি সংশ্লিষ্ট দলের কোনও প্লেয়ারকে ফের ফেলেভ ওয়ানের অপরাধে দোষী পাওয়া গেলে সংশ্লিষ্ট সেই দলকে পাঁচ রানের জরিমানার সম্মুখীন হয়ে হবে”। এছাড়াও লেভেল ২ এর অপরাধের ক্ষেত্রে বলা হয়েছে, “ যদি কোনও দলের প্লেয়ারকে লেভেল ২ এর আওতায় পাওয়া যায় তাহলে তৎক্ষণাৎ সেই দলকে পাঁচ রানের জরিমানা করা হবে”। অন্যদিকে লেভেল ৩ এবং ৪ এর ক্ষেত্রে বলা হয়েছে, “ কোনও প্লেয়ারকে যদি লেভেল ৩ এবং ৪ এর আওতায় পাওয়া যায় তাহলে তৎক্ষণাৎ সেই প্লেয়ারকে মাঠের বাইরে পাঠিয়ে দেওয়া হবে। সেক্ষেত্রে ওই প্লেয়ারকে হয় সাময়িকভাবে নয়ত বাকি পুরো ম্যাচের জন্যই মাঠের বাইরে পাঠানো হতে পারে। সেই সঙ্গে সংশ্লিষ্ট দলকে পাঁচ রানের জরিমানাও করা হবে”।

আগামি মরশুমের জন্য নতুন নিয়মের ঘোষণা করল ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়ালস ক্রিকেট বোর্ড 3

ব্যাটের আয়তন – এছাড়াও ইসিবি এমসিসির নতুন পাঁচ নাম্বার আইনের প্রচলন করতেও সম্মত হয়েছে। ওই আইন মোতাবেন ব্যাটের কোনার বেধ ৪০ এমএম এবং ব্যাটের ওভারঅল গভীরতা ৬৭ এমএমের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখতে হবে। মাঠে খেলা চলাকালীন কিংবা মাঠের বাইরে অ্যাম্পায়ারের কাছে ব্যাটের গেজ মাপার যন্ত্র থাকবে ব্যাটের বৈধতা পরিমাপ করার জন্য।

মক ফিল্ডিং – মক ফিল্ডিংয়ের ক্ষেত্রে যে নতুন নিয়মের প্রচলন করেছে ইসিবি তা হল – ব্যাটসম্যানকে বোকা বানিয়ে কোনও ফিল্ডারের ইচ্চাকৃত চেষ্টা করা। আনফেয়ার প্লের জন্য এই নিয়ম বলবত করা হয়েছে ৪১ নাম্বার ধারার অধীনে। এই অপরাধের ক্ষেত্রে শাস্তির পরিমান হল পাঁচ রানের জরিমানা সহ অন্য শাস্তি।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *