আইপিএল ২০১৮: ম্যাচ ১০, কেকেআর বনাম এসআরএইচ, ম্যাচের পর কে কি বললেন জেনে নেওয়া যাক 1

কলকাতার বিরুদ্ধে তাদের তৃতীয় ম্যাচে নামার আগে কলকাতার বিরুদ্ধে ইডেনে তাদের অতীত ফলাফলই তাদের প্রধান বাধা ছিল। এর আগে অতীতের পাঁচটি ম্যাচে ইডেনে তারা একটি ম্যাচেও জয় হাসিল করতে পারেন নি। মূলত কলকাতা নাইট রাইডার্সেদের সিন বোলিংয়ের সুবাদে এই ম্যাচে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইতে পরিনত হয়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত হায়দ্রাবাদ ব্যাটসম্যানরা নিজেদের নার্ভ ধরে রেখে ঘরের দলকে এই ম্যাচে পাঁচ উইকেটে হারিয়ে দেয়। এই ম্যাচে প্রথমে টস জিতে ফিল্ডি করার সিদ্ধান্ত নেন কেন উইলিয়ামসন। প্রথম থেকেই কেকেআর ব্যাটিং লাইনআইপে ধাক্কা দেন হায়দ্রাবাদের জোরে বোলার ভুবনেশ্বের কুমার। এই ম্যাচে সুনীল নারিনের জায়গায় ওপেন করতে নামা উথাপ্পাকে ফিরিয়ে দেন তিনি। তিন নম্বরে ব্যাট করতে নামা নীতিশ রানা চেষ্টা করলেও ভয়ংকর হয়ে ওঠার আগেই তাকেও ফিরিয়ে দেন বিলি স্ট্যানলেক। এই ম্যাচে লেফট আর্ম স্পিনার সাকিব যথেষ্ট কার্যরকরী হয়ে ওঠেন।

আইপিএল ২০১৮: ম্যাচ ১০, কেকেআর বনাম এসআরএইচ, ম্যাচের পর কে কি বললেন জেনে নেওয়া যাক 2

এই ম্যাচে দারুণ ব্যাট করতে থাকা ক্রিস লিনকে ফিরিয়ে দিয়ে ম্যাচ হায়দ্রাবাদের দখলে এনে দেন তিনি। এরপরই তাসের ঘরের মত ভেঙে পড়ে কলকাতা নাইট রাইডার্সের ইনিংস। শেষ দিকে খানিকটা চেষ্টা করেন অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক, কিন্তু ততক্ষণে অনেকটাই দেরী হয়ে গেছে। শেষ পর্যন্ত ১৩৮/৮ রানে শেষ হয় কেকেআর ইনিংস। অন্যদিকে রান তারা করতে নেমে শিখর ধবন শুরুতেই আউট হয়ে গেলে আরেক ওপেনার ঋদ্ধিমান সাহা যথেষ্ট ভালো ব্যাটিং করে ব্যক্তগত ২৫ রানে আউট হন। সুনীল নারিন এবং কুলদীপ যাদব কেকেআরের দুই স্পিনার কলকাতাকে ম্যাচে ফেরানোর চেষ্টা করলেও হায়দ্রাবাদ অধিনায়ক উইলিয়ামসনের কাছে হার মানেন। উইলিয়ামসন শেষ পর্যন্ত ১৯ তম ওভারে আউট হওয়ার আগে সাকিব আল হাসানের সঙ্গে ৫৯ রান যোগ করে দলকে বিপদসীমার বাইরে নিয়ে যান। এরপরই ক্রিজে এসে ইউসুফ পাঠান নিজের সক্ষমতার প্রমান দিয়ে গোটা দুই বাউন্ডারি মেরে দলকে জয় এনে দেন। একবার দেখে নেওয়া যাক কে কি বললেন ম্যাচ শেষে।

আইপিএল ২০১৮: ম্যাচ ১০, কেকেআর বনাম এসআরএইচ, ম্যাচের পর কে কি বললেন জেনে নেওয়া যাক 3

ম্যান অফ দ্য ম্যাচ বিলি স্ট্যানলেক:

দলের কাজে এগিয়ে আসতে পেরে এবং গোটা দুই উইকেট নিতে পেরে ভালো লাগছে। আমরা কাজটা খুবই সাধারণ, মাঠে যাও এবং উইকেট তোলো। আমরা ভেবেছিলাম এটা ভালোভাবেই আসবে। কিন্তু এটা টেনিস-বাউন্সির মত খানিকটা আটকে গিয়েছিল। দুটো দুরন্ত ক্যাচ মনীশ পান্ডেকে দুটো বিয়ারের মতই দেওয়ার হয়েছিল। ওগুলো দারুণ দুটো ক্যাচ।

কেকেআর অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক:

বেসিক্যালি, আমরা ব্যাটসম্যানদের পরিস্থিতি অনুযায়ী পাঠাতে চেয়েছিলাম। যখন লেফট আর্ম স্পিনাররা বল করছিল, আমরা চেয়েছিলাম নারিন ক্রিজে যাক, এবং নিজেকে মেলে ধরুক। আমি ভেবেছিলাম, ১৬০-১৭০ রান ডিফেন্ড করার জন্য যথেষ্ট ভালো স্কোর, কিন্তু আমার মনে হয় না আমাদের যা ব্যাটিং শক্তি আছে সেই অনুযায়ী আমরা ব্যাট করেছি। আমরা সেভাবেই খেলেছি যেভাবে আমরা দেখেছি, আমরা দেখতে চেষ্টা করেছি কোন বোলার তাদের শ্রেষ্ঠত্বের ধারে কাছে নেই, এবং তাদের উপরেই আমরা চড়াও হওয়ার চেষ্টা করেছি।

আইপিএল ২০১৮: ম্যাচ ১০, কেকেআর বনাম এসআরএইচ, ম্যাচের পর কে কি বললেন জেনে নেওয়া যাক 4

এসআরএইচ অধিনায়ক উইলিয়ামসন:

স্পষ্টতই পরপর তিনটে ম্যাচ দারুণ ব্যাপার। আমাদের খেলার ভালোর দিকটা হল আগের ম্যাচের থেকেও উন্নতি। দারুণ ফিল্ডিং ছিল। বোলারাও দারুণ বল করেছে। সবচেয়ে ভালো ব্যাপার হল তারা এটা ধারাবাহিকভাবে করতে সক্ষম। যেভাবে ওরা এই তিনটে ম্যাচে জবাব দিয়েছে, তা অসাধারণ। ধরে নেওয়া যেতে পারে যে ছেলেরা এই ধরনের ভালো সারফেসে খেলার ব্যাপারে অভ্যস্ত। স্পিনারদের জন্য খুব বেশি টার্ন ছিল না, কিন্তু ওরা ভালো লেংথে বল করেছে। কেকেআর সত্যিই একটা দারুণ দল। ওদেরকে আটকে দেওয়াটা এবং রান তাড়া করাটা দুর্দান্ত ছিল।

আইপিএল ২০১৮: ম্যাচ ১০, কেকেআর বনাম এসআরএইচ, ম্যাচের পর কে কি বললেন জেনে নেওয়া যাক 5

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *