আইপিএল ২০১৮: বাকি আইপিএলে আর খেলতে পারবেন না হায়দ্রাবাদের এই জোরে বোলার! কেন জেনে নিন

এই মুহুর্তে আইপিএলের শুরুর দিকে তাদের পারফর্মেন্সের খোঁজে রয়েছে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। পরপর তিন ম্যাচ জিতে তাদের আইপিএল অভিযান শুরুর করেছিল সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। কিন্তু তারপর উপর্যুপরি পরপর দু ম্যাচে তাদের হারের মুখ দেখতে হয়। তবে মুম্বাইয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচে নামার আগে রীতিমত হাসপাতালে পরিণত হয়েছে তাদের শিবির। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিরুদ্ধে ব্যাটিংয়ের শুরুতেই কনুইতে চোট লেগে ছিটকে গিয়েছিলেন শিখর ধবন। গত ম্যাচেও মাসল ক্র্যাম্প দেখা দিয়েছে ইউসুফ পাঠানের। অন্যদিকে পিঠের ব্যাথায় ভুগছেন তাদের নির্ভরযোগ্য জোরে বোলার ভুবনেশ্বর কুমারও। এই মুহুর্তে তাকে বিশ্রামের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। ফলে মুম্বাইয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচে খেলতে পারবেন না তিনি।

আইপিএল ২০১৮: বাকি আইপিএলে আর খেলতে পারবেন না হায়দ্রাবাদের এই জোরে বোলার! কেন জেনে নিন 1

এবার তাদের আরও এক জোরে বোলার অস্ট্রলীয় তারকা বিলি স্ট্যানলেক ছিটকে গেলেন বাকি আইপিএল থেকেই। অস্ট্রেলীয় এই জোরে বোলার আঙুল চোট লাগায় খেলতে পারবেন না হায়দ্রাবাদের বাকি আইপিএল ম্যাচ গুলিতে। প্রসঙ্গত অস্ট্রেলিয়ার এই দীর্ঘাকায় জোরে বোলার রাজস্থানের বিরুদ্ধে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে আইপিএল তাদের প্রথম ম্যাচেই অভিষেক ঘটান। ওই ম্যাচে ২৯ রানের বিনিময়ে এই উইকেট নেন বিলি এবং ওই ম্যাচে হায়দ্রাবাদও হারিয়ে দেয় রাজস্থানকে। হায়দ্রাবাদের হয়ে তিনি তিনটি ম্যাচে খেলে আরও চারটি উইকেট নিয়েছেন। এছাড়াও এর আগে হায়দ্রাবাদের ঘরের মাঠে মুম্বাইয়ের বিরুদ্ধে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইতে তিনি শেষ বলে হায়দ্রাবাদের হয়ে জয়সূচক রানটিও করেন।

আইপিএল ২০১৮: বাকি আইপিএলে আর খেলতে পারবেন না হায়দ্রাবাদের এই জোরে বোলার! কেন জেনে নিন 2

এখনও পর্যন্ত হায়দ্রাবাদ পরপর তিন ম্যাচে রাজস্থান রয়্যালস, মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স এবং কলকাতা নাইট রাইডার্সকে হারিয়ে পরপর তিন ম্যাচে জয় দিয়ে তাদের আইপিএল অভিযান শুরু করলেও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব এবং চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে পরপর দু ম্যাচে তাদের হারের মুখ দেখতে হয়েছে। ফলে বিলি স্ট্যানলেক চবাকি আইপিএল থেকে ছিটকে যাওয়ায় তাদের বোলিং বিভাগ নিয়ে সমস্যা দেখা দিতে পারে। প্রসঙ্গত গত জানুয়ারিতে ব্যাঙ্গালুরুতে অনুষ্ঠি্ত আইপিএল নিলামে এই অস্ট্রেলীয় জোরে বোলারকে ৫০ লক্ষ টাকার বিনিময়ে কেনে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। এই মরশুমে হায়দ্রাবাদের হয়ে চারটি ম্যাচে তার পারফর্মেন্সও যথেষ্ট প্রভাব ফেলেছে। বল হাতে বহুবারই তিনি ঘন্টায় ১৫০ কিমি বেগে বল করে ব্যাটসম্যানদের সমস্যায় ফেলে দেন। হায়দ্রাবাদের হয়ে চারটি ম্যাচ খেলে তিনি ৮.১২ ইকোনমি রেটে ৫টি উইকেট নিয়েছেন। তার অনুপস্থিতিতে হায়দ্রাবাদ যে সমস্ত প্লেয়ারদের তার পরিবর্ত হিসেবে নিতে পারে তাদের নাম একবার দেখে নেওয়া যাক।

থিসেরা পেরেরা

আইপিএল ২০১৮: বাকি আইপিএলে আর খেলতে পারবেন না হায়দ্রাবাদের এই জোরে বোলার! কেন জেনে নিন 3

শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটার থিসেরা পেরেরা এই মুহুর্তে বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম সেরা টি২০ স্পেশালিস্ট। ব্যাট এবং বল দুটোতেই তিনি ম্যাচ জেতানোর সক্ষমতা রাখেন। তিনি শ্রীলঙ্কার টি২০ জাতীয় দলেরও নিয়মিত সদস্য। এখনও পর্যন্ত শ্রীলঙ্কার এই অলরাউন্ডার ২৬৩টি টি২০ ম্যাচ খেলে ৮.৪৬ ইকোনমি রেটে ২১৪টি উইকেট নিয়েছেন এবং ১৪৫.০৪ স্ট্রাইক রেট নিয়ে ২৭৮২ রানও করেছেন। ঝুলিতে যথেষ্ট অভিজ্ঞতা নিয়ে তিনি ভুবনেশ্বর কুমার এবং সিদ্ধার্থ কৌলের যোগ্য জুড়িদার হয়ে হায়দ্রাবাদ দলে স্ট্যানলেকের পরিবর্ত হতে পারেন।

সিয়ান অ্যাব্বট

আইপিএল ২০১৮: বাকি আইপিএলে আর খেলতে পারবেন না হায়দ্রাবাদের এই জোরে বোলার! কেন জেনে নিন 4

অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া ক্রিকেটের অন্যতম শ্রেষ্ঠ জোরে বোলার হলেন সিয়ান অ্যাব্বট। সেই সময় তিনি প্রথম লাইমলাইটে আসেন যখন তার করা একটি বাউন্সারের আঘাতে মাথায় চোট পেয়ে মাঠেই মারা যান ফিল হিউজ। গত বিগব্যাশ লিগ মরশুমে তিনি সিডনি সিক্সার্সের হয়ে গেলে পুরো মরশুমে জুড়েই যথেষ্ট প্রভাবশালী পারফর্মেন্স দেখিয়েছেন। সিডনি সিক্সার্সের হয়ে ১০টি ম্যাচে তিনি ৮.৪৯ ইকোনমি রেটে ১৩টি উইকেট নিয়েছেন। ওই মরশুমে তিনি তার ফ্রেঞ্চাইজির হয়ে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারিও ছিলেন। এমন দুরন্ত পারফর্মেন্স করার পরও তাকে আইপিএল নিলামে অবিক্রীত থাকতে দেখে অনেকেই অবাক হয়েছিলেন। অ্যাব্বট একজন উইকেট টেকার বোলার এবং তিনি বিলি স্ট্যানলেকের সঠিক পরিবর্ত হিসেবে হায়দ্রাবাদ দলে জায়গা করে নিতে পারেন।

জুনিয়র ডালা

আইপিএল ২০১৮: বাকি আইপিএলে আর খেলতে পারবেন না হায়দ্রাবাদের এই জোরে বোলার! কেন জেনে নিন 5

ভারতের বিরুদ্ধে টি২০ সিরিজে দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে অভিষেক ঘটিয়েছিলেন জুনিয়র ডালা। তিনি ওই সিরিজ জুড়েই যথেষ্ট প্রভাবশালী পারফর্মেন্স করে সিরিজের তিনটি টি২০ ম্যাচেই ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের সমস্যায় ফেলেছিলেন। ওই তিন ম্যাচে ৯.১৬ ইকোনমি রেটে ডালা ৭টি উইকেটও নিয়েছেন। এমনকী ভুবনেশ্বর কুমারের সঙ্গে তিনি ওই সিরিজে যুগ্মভাবে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারিও হন। আইপিএল নিলামে তিনি অবিক্রীতই থেকে যান, সম্ভবত ফ্রেঞ্চাইজিগুলোর কাছে তিনি খুব বেশি পরিচিত না হওয়ায়।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *