এই মুহুর্তে আইপিএল তার দ্বিতীয় চরণে প্রবেশ করেছে। স্বভাবিকভাবেই তাই ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ থেকে সমর্থকরা সকলেই ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন হিসেবে নিকেশ করতে, কারা উঠবেন শেষ চার আর কারাই বা হবেন ব্যর্থ। এই মুহুর্তে পয়েন্ট টেবিলের দিকে চোখ রাখলে দেখা যাবে ৭ ম্যাচে ৫ জয় নিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে রয়েছে মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বাধীন চেন্নাই সুপার কিংস। অন্যদিকে একদম বিপরীত মেরুতে অবস্থান করছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। লিগ টেবিলের একদম নীচে রয়েছে তারা ৭টি ম্যাচের মধ্যে মাত্র ২টিতে জয় লাভ করে। এদিকে ক্রিকেট জগত ব্যস্ত হয়ে পড়েছে এই অনুমান করতে যে কারা পার্পল ক্যাপ আর অরেঞ্জ ক্যাপ জিতবে, কারাই বা চ্যাম্পিয়ন হবে এই প্রতিযোগিতায়।

বিজ্ঞাতসম্মত জ্যোতিষী গ্রীনস্টোন লোবো আইপিএলের একাদশ সংস্করণের দ্বিতীয় চরণ নিয়ে নিজের ভবিষ্যৎবাণী করেছেন। লোবোর গণনা অনুযায়ী প্লে অফে যেতে ব্যর্থ হবে দিল্লি ডেয়ারডেভিলস। এই মুহুর্তে দিল্লি নতুন অধিনায়কের নেতৃত্বে কলকাতাকে ৫৫ রানে হারিয়ে সপ্তম স্থানে রয়েছে। লোবোর ভবিষ্যৎবাণী অনুযায়ী শ্রেয়স আইয়ারের বয়েসই দিল্লির শেষ চারে যাওয়ার বাধা হয়ে দাঁড়াবে। একটি নিউজ পোর্টালে নিজের প্রেডিকশন নিয়ে লোবো লিখেছেন, “ গৌতম গম্ভীরের পরিবর্তে অধিনায়ক হওয়া শ্রেয়স আইয়ার দিল্লিকে দারুণ শুরুয়াত দিয়েছেন। ওরও খুব ভাল রাশিফল রয়েছে। কিন্তু ওর বয়েসই ওর দলকে প্লে অফে কোয়ালিফাই করা থেকে আটকে দেবে। দিল্লির জন্য আইপিএলে এখনও সমস্যার সমাধান হয় নি, তবে তারা নিশ্চিতভাবেই শ্রেয়স আইয়ারের অধিনায়ক হওয়ায় ভবিষ্যতে আইপিএলের মজবুত দাবীদার হবে”।

অন্যদিকে লোবো এও জানিয়েছেন যে চেন্নাই সুপার কিংস নিশ্চিতভাবেই প্লে অফে জায়গা করে নেবে। তবে তার মতে দু’বারের আইপিএল চ্যাম্পিয়নদের এই মরশুমে প্রত্যাবর্তন রূপকথার মত হবে না। মজার ব্যাপার হল লোবোর ভবিষ্যৎবাণী অনুযায়ী চেন্নাই সুপার কিংস এ বছর খেতাব তখনই জিততে পারে যদি তাদের অধিনায়ক ধোনি আহত হন এবং তার জায়গায় দলকে নেতৃত্ব দেন ডোয়েন ব্র্যাভো। লোবো নিজের কলামে লিখেছেন, “ ব্যক্তিগত তারকা প্লেয়ারদের যৌথ শক্তি চেন্নাই সুপার কিংসকে ভাল জায়গায় নিয়ে যাবে। তারা এগিয়ে যাবে এমনকী তারা প্লে অফেও যাবেন। কিন্তু নিশ্চিতভাবেই এই প্রতিযোগিতা তারা জিততে পারবেন না, কারণ এর আগে ধোনি এবং স্টিফেন ফ্লেমিং বহু জয় হাসিল করেছেন এবং এই ধরনের বড় প্রতিযোগিতা জেতার জন্য তাদের কার্মিক কোটা সমাপ্ত হয়েছে। একমাত্র সিএসকের কাছে সুযোগ থাকবে যদি ধোনি আহত হন এবং তার জায়গায় প্লে অফ দলকে নেতৃত্ব দেন ডোয়েন ব্র্যাভো”।

অন্যদিকে রাজস্থান রয়্যালস এবং কলকাতা নাইট রাইডার্সের এই প্রতিযোগিতায় সম্ভবনার কথা বলতে গিয়ে লোবো পরিস্কারই জানিয়ে দিয়েছেন যে এই দুই দলের কেউই এই খেতাব জিততে পারেবন না। লোবোর অক্তব্য অনুযায়ী, “রাজস্থান রয়্যালসের অজিঙ্ক রাহানের রাশিফল যথেষ্ট ভাল নয় এই বিশাল প্রতিযোগিতা জেতার জন্য। রয়্যালসের প্লে অফে যাওয়াও মুশকিল হতে পারে। তাদের নিয়মিত অধিনায়ক স্টিভ স্মিথের অনুপস্থিতি নিশ্চিতভাবেই তাদের আরও প্রভাবিত করবে। যদিও দীনেশ কার্তিকের রাশিফল যথেষ্টই ভাল, কিন্তু কলকাতা নাইট রাইডার্স এই খেতাব জিততে পারবে না ভারসাম্যহীন দলের কারণে। তাদের কাছে এমন কিছু প্লেয়ার রয়েছে যারা ইতিমধ্যেই এই প্রতিযোগিতা জিতেছেন, এবং এমন কিছু প্লেয়ার রয়েছে যারা এত তাড়াতাড়ি এই প্রতিযোগিতা জেতার জন্য ভীষণই তরুণ। এমনকী যদি তারা প্লে অফেও যায় তাহলেও তারা হেরে যাবে”।

তবে লোবোর কথা অনুযায়ী আইপিএলে জেতার সবচেয়ে বেশি সুযোগ রয়েছে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের কাছে। কারণ হিসেবে তিনি জানান যে তাদের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন অধিনায়ক হিসেবে প্রথম তরুণ নন দ্বিতীয়ত উইলিয়ামসন একটি যথেষ্ট ব্যালান্সড দলের নেতৃত্বে রয়েছে। তার কথা অনুযায়ী, “ শ্রেয়স আইয়ারের অধিনায়ক পদে উন্নতি অন্য একটি দলের সমীকরণ বদলে দিতে পারেন — সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। কারণ কেন উইলিয়ামসন এই প্রতিযোগিতার তরুণতম অধিনায়ক নন, তার এই প্রতিযোগিতা জেতার সুযোগ হঠাৎ করেই উজ্জ্বল হয়েছে। এ ব্যাপারে কোনও ভুল নেই, এবং এসআরএইচ এমন একটা দল যাদের অ্যাস্ট্রোলজিক্যালি ব্যালান্সড দল এবং কোচ রয়েছে এই টুর্নামেন্ট জেতার জন্য। এসআরএইচ তাদের উদ্ভাবনী অধিনায়কত্ব এবং অন্যবদ্য বোলিং আক্রমণের সঙ্গে অন্যান্য দলগুলিকে দমন করা জারি রাখবে। আশ্চর্য হবেন না, যদি এসআরএইচ এই টুর্নামেন্টের শেষ পর্যন্ত যায়”।

অন্যদিকে এই আইপিএলে রয়্যালস চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুকে নিয়ে বলতে গিয়ে যথেষ্ট আশার কথা শুনিয়েছেন লোবো। এই মুহুর্তে ৬ ম্যাচে ২টি জয় পেয়ে তারা পয়েন্ট টেবিলে ষষ্ঠ স্থানে রয়েছেন। লোবোর গণনা অনুযায়ী বিরাট কোহলি দুর্দান্ত রাশিফলই তাদের দলকে এই মরশুমে তাদের প্রথম খেতাব এনে দিতে পারে। লোবো তার গণনা অনুযায়ী বলেন, “ আরসিবি এখনও প্লে অফে কোয়ালিফাই করার স্বপ্ন দেখতে পারে এবং এমনকী এই টুর্নামেন্টও জিততে পারে অধিনায়ক বিরাট কোহলির উৎকৃষ্ট রাশিফলের জন্য। আরসিবি যে ভুলটা করেছে, তা হল তারা তাদের অ্যাস্ট্রোলজিক্যালি সেরা একাদশ খেলায় নি। তাদের দলে দারুণ গভীরতা আছে, এবং যদি তারা সঠিক কম্বিনেশন পেয়ে যায়, তাহলে তারা এখনও এই প্রতিযোগিতা জিততে পারে। আরও একটি অ্যাস্ট্রোলজিক্যাল ফেবারিট দল হল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব যারা এই প্রতিযোগিতা জিততে পারে তাদের অধিনায়ক অশ্বিন, দল এবং কোচের যৌথ শক্তির কারণে।

  • SHARE
    সাংবাদিক, আদ্যন্ত ক্রীড়াপ্রেমী। ব্রায়ান লারা সচিনের ভক্ত। ক্রিকেটের বাইরে ব্রাজিলের সমর্থক এবং নেইমার ও মেসির অন্ধ ভক্ত।

    আরও পড়ুন

    ভারতীয় ওয়ানডে দলে দ্রুত শামিল হতে পারেন এই তিন ক্রিকেটার

    ভারতীয় দল ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সম্প্রতি শেষ হওয়া ওয়ানডে সিরিজে ২-১ ফলাফলে হেরে গিয়েছে। প্রথম ম্যাচ জেতার পরও...

    বিশ্বের এক নম্বর টি২০ বোলার রশিদ খান দিলেন হার্দিক পান্ডিয়াকে বাউন্স খেলার চ্যালেঞ্জ, বদলে পেলেন এই জবাব

    বিশ্বের এক নম্বর টি২০ বোলার রশিদ খান দিলেন হার্দিক পান্ডিয়াকে বাউন্স খেলার চ্যালেঞ্জ, বদলে পেলেন এই জবাব
    ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ দুনিয়াভরের খেলোয়াড়দের এক মঞ্চে নিয়ে আসার কাজ করেছে। এটাই কারণ যে আলাদা আলাদা দেশের...

    ধোনিকে নিয়ে বিসিসিআই লিখল ভুল, ভক্তরা বদলে করল ট্রোল

    ধোনিকে নিয়ে বিসিসিআই লিখল ভুল, ভক্তরা বদলে করল ট্রোল
    ভারতীয় ক্রিকেট ইতিহাসে সফলতম অধিনায়কের উল্লেখ যখনই করা হবে তাতে টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তণ অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির...

    ছবি: সেক্সিয়েস্ট স্পোর্টস সাংবাদিক মায়ান্তি ল্যাঙ্গারের কিছু হটেস্ট ফটো

    স্টার স্পোর্টস এবং অন্যান্য স্পোর্টস চ্যানেল এর সৌজন্নে এই মুহূর্তে উপস্থাপিকা হিসাবে মায়ান্তি ল্যাঙ্গার একজন সুপরিচিত মুখ। মায়ান্তি...

    “শিক্ষাই জাতির মেরুদন্ড”………. বিখ্যাত ভারতীয় ক্রিকেটারদের শিক্ষাগত যোগ্যতা!

    যে কোনো খেলাধুলার জগতে প্রতিভাই হল মাপকাঠি, এবং বহুলাংশেই শিক্ষাগত যোগ্যতা গুরুত্বহীন থাকে। তবে আজ আমরা এই...