আইপিএল ২০১৮: এসআরএইচ বনাম সিএসকে, স্ট্যাটিস্টিক্যাল হাইলাইটস 1

চেন্নাই সুপার কিংস ঘরের দল সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের বিরুদ্ধে শেষ ওভারের রুদ্ধশ্বাস নাটকের পর ৪ রানের ব্যবধানে জয় হাসিল করে লিগ টেবিলের শীর্ষে পৌঁছে গেল। আম্বাতি রায়ডুর ৩৭ বলে ৭৯ রানের ইনিংসের পাশাপাশি সুরেশ রায়নার অপরাজিত ৫২ রানের ইনিংসের সৌজন্য চেন্নাই সুপার কিংস তাদের ইনিংস শেষ করে ১৮২/৩ রানে। অন্যদিকে হায়দ্রাবাদের রান তাড়া করতে নামায় দীপক চাহার তার প্রথম তিন ওভারে ৩ উইকেট তুলে নেন এবং হায়দ্রাবাদের ইনিংস ২২/৩ হয়ে যায়। হায়দ্রাবাদ অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন তার ৫১ বলে ৮৪ রানের ইনিংসের সাহায্যে দলকে টেনে তোলার চেষ্টা করেন। তাকে সহায়তা করেন ৪টি ছয় মেরে ৪৫ রান করা ইউসুফ পাঠান। শেষ দিকে রশিদ খান ৪ বলে ১৭ রান করে হায়দ্রাবাদকে জয়ে দিকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলেও চেন্নাইয়ের লক্ষ্যমাত্রা থেকে মাত্র ৫ রান দূরেই থেমে যান। শেষ পর্যন্ত এই ম্যাচ পাঁচ রানে হেরে যায় হায়দ্রাবাদ।

আইপিএল ২০১৮: এসআরএইচ বনাম সিএসকে, স্ট্যাটিস্টিক্যাল হাইলাইটস 2

পরিসংখ্যানগত তথ্যাবলী:

১—তার আইপিএল কেরিয়ারে প্রথমবার ভুবনেশ্বর কুমার তার চার ওভার সম্পূর্ণ করতে পারলেন হায়দ্রাবাদের ২০ ওভার বোলিংয়ে। সিএসকের ইনিংসের প্রথম দশ ওভারে ভুবি মাত্র ৩ ওভার বল করেন।

৩—হায়দ্রাবাদের মাটিতে রান তাড়া করতে নেমে এটাই মাত্র তিনবার যখন হায়দ্রাবাদ ম্যাচ হেরে যায়। এর আগে তারা ২০১৩ মরশুমে সিএসকের রান তাড়া করতে নেমে ৭৭ রানে হেরে যায় এবং ২০১৭য় রাইজিং পুণে সুপারস্টারের রান তাড়া করতে নেমে ১২ রানে হেরে যায়।

আইপিএল ২০১৮: এসআরএইচ বনাম সিএসকে, স্ট্যাটিস্টিক্যাল হাইলাইটস 3

৭৪—আইপিএলের ৭৪টি ম্যাচে এই প্রথম হায়দ্রাবাদের প্রথম একাদশ শিখর ধবনকে ছাড়াই মাঠে নামল। ২০১৩য় প্রথম সাতটি ম্যাচের পর শিখর ধবন ৭৩টি ম্যাচে ধারাবাহিকভাবে হায়দ্রাবাদের প্রতিনিধিত্ব করেন।

৭৮.৩৩ –হায়দ্রাবাদের হায়দ্রাবাদের বিরুদ্ধে আম্বাতি রায়ডুর ব্যাটিং অ্যাভারেজ। এই মাঠে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের বিরুদ্ধে চারটি ইনিংসে তিনটি হাফসেঞ্চুরি সহ ২৩৫ রান করেন রায়ডু।

৭৯—টি২০ ফর্ম্যাটে ৭৯ রান তার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রান। ২০১২ মরশুমে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে খেলে আরসিবির বিরুদ্ধে তিনি অপরাজিত ৮১ রান করেছিলেন।

আইপিএল ২০১৮: এসআরএইচ বনাম সিএসকে, স্ট্যাটিস্টিক্যাল হাইলাইটস 4

৮৪—আইপিএলে হেরে যাওয়া দলের ব্যাটসম্যান হিসেবে কেন উইলিয়ামসনের ৮৪ রান হায়দ্রাবাদের হয়ে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোর। এর আগে ২০১৪ মরশুমে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিরুদ্ধে হেরে যাওয়ার সময় নমন ওঝা হায়দ্রাবাদের হয়ে অপরাজিত ৭৯ রান করেন।

১১২—আম্বাতি রায়ডু এবং সুরেশ রায়নার মধ্যে হওয়া ১১২ রানের পার্টনারশিপ যে কোনও দলের বিরুদ্ধে তৃতীয় উইকেট জুটি বা তার নীচের উইকেট জুটিতে সর্বোচ্চ রানের পার্টনারশিপ সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের বিরুদ্ধে। এর আগে ২০১৪ মরশুমে চতুর্থ উইকেট জুটিতে এমএস ধোনি এবং ডেভিড হাসি অপরাজিত ১০৮ রানের পার্টনারশিপ গড়ে ছিলেন।

১৫১— তার আইপিএলে কেরিয়ারে এই সংখ্যক ছয় মেরেছেন ইউসুফ পাঠান। আইপিএলের অষ্টম প্লেয়ার হিসেবে তিনি ১৫০টি ছয় মেরেছেন। এছাড়াও আইপিএলে ৩০০০ রান পূর্ণ করতে ইউসুফের দরকার আর মাত্র ১ রান।

আইপিএল ২০১৮: এসআরএইচ বনাম সিএসকে, স্ট্যাটিস্টিক্যাল হাইলাইটস 5

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *