আইপিএল ২০১৮: আমার নামটা মনে রাখবেন : ক্রিস গেইল

হায়দ্রাবাদের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে নিজেদের শেষ ম্যাচে ১৫ রানে জয় হাসিল করে নিল রবিচন্দ্রন অশ্বিনের নেতৃত্বাধীন কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। তবে এই ম্যাচে নামার আগে অতীত ফলাফল পাঞ্জাবের পক্ষে ছিল না। এর আগে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব মোহালির মাঠে আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের বিরুদ্ধে একটিও ম্যাচ জিততে পারে নি। ঘরের মাঠে খেলা আইপিএলের ছটি ম্যাচেই হায়দ্রাবাদের বিরুদ্ধে হেরেছে তারা। মোহালির পিচ ব্যাটসম্যানদের স্বর্গ এবং এখানে রান তাড়া করতে নামা দলই ম্যাচ জেতে, এই তথ্য মাথায় রেখেও টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন পাঞ্জাব অধিনায়ক অশ্বিন। এদিন যেন মাঠে অধিনায়কের সিদ্ধান্তকেই সঠিক প্রমান করতে নেমেছিলেন পাঞ্জাবের ওপেনার ক্রিস গেইল। প্রথম দিকে ধীরে শুরু করলেও শেষ দিকে রীতিমতো বিধ্বংসী হয়ে ওঠেন তিনি।

আইপিএল ২০১৮: আমার নামটা মনে রাখবেন : ক্রিস গেইল 1

একা গেইলই হায়দ্রাবাদের বোলারদের মাঠের বাইরে ফেলে দিয়ে তাদের ব্যাকফুটে ঠেলে দেয়। গেইলের সঙ্গে এই ম্যাচে ওপেন করতে নেমেছিলেন কেএল রাহুল। তিনি আউট হন ব্যক্তিগত ১৮ রানের মাথায়। কিন্তু গেইলকে থামানো যায় নি তাতে। মাত্র ৩৯ বলে নিজের হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন এই জামাইকান দৈত্য। এমনকী হায়দ্রাবাদের সেরা বোলার রশিদ খানকেও বারবার মাঠের বাইরে পাঠান তিনি। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৯৩/৩ রান করে পাঞ্জাব। অন্যদিকে ব্যাট করতে নেমে হায়দ্রাবাদের শুরুটাও আশানুরূপ হয় নি। শুরুতেই বারীন্দর শ্রানের বলে কনুইতে চোট পান তাদের নির্ভরযোগ্য ওপেনার শিখর ধবন। রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছাড়তে বাধ্য হন তিনি। দ্রুতই আরেক ওপেনার ঋদ্ধিমান সাহাকেও তলে নেন মোহিত শর্মা। এরপর ইউসুফ পাঠান আশা জাগিয়েও শেষ পর্যন্ত তা ধরে রাখতে পারেন নি। অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন এবং মনীশ পান্ডে দুজনেই হাফ সেঞ্চুরি করলেও কিংসের রানকে তারা পেছনে ফেলতে পারেন নি।

আইপিএল ২০১৮: আমার নামটা মনে রাখবেন : ক্রিস গেইল 2

ম্যাচ শেষে খানিকটা অভিমান টের পাওয়া গেল পাঞ্জাব ওপেনার ক্রিস গেইলের কথায়। এই ম্যাচ শেষ পর্যন্ত ১০৪ রানে অপরাজিত থেকে ম্যান অফ দ্য ম্যাচের পুরস্কার পান গেই। পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে দাঁড়িয়ে গেইল বলেন, “সবসময়ই আমি মাঠে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ থাকি। আমি আমার সমস্তটাই দেওয়ার চেষ্টা করি তা সে আমি যে ফ্রেঞ্চাইজির হয়েই প্রতিনিধিত্ব করি না কেন। আমি একশো শতাংশই দিই। এটা নতুন ফ্রেঞ্চাইজি আমি আগেই বলেছি। অনেকেই বললেন যে ক্রিস গেইলের অনেক কিছু প্রমান করার আছে—কারণ ও শুরুতেই নির্বাচিত হয় নি বা নিলামের প্রথম দিকে ওকে কেউ কেনে নি। আমার মনে হয় আইপিএলকে বাঁচিয়ে দিয়েছেন বীরেন্দ্র সেহবাগ আমাকে নিলামে তুলে নিয়ে”।

আইপিএল ২০১৮: আমার নামটা মনে রাখবেন : ক্রিস গেইল 3

আইপিএলে যে এবার থেকে আরও বিধ্বংসী মেজাজে তাকে দেখা যাবে সেকথাও জানিয়েন এই ক্যারিবিয়ান বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান। শুধু তাই নয় নিজের নামটাকেও মনে রাখার কথা বলছেন তার সমালোচকদের। ক্রিস বলেন, “ এটা দারুণ একটা শুরুয়াত। একটা ইন্টারভিউতে বীরু একবার বলেছিল যে, আমাদের যদি দুটো ম্যাচও জিতিয়ে দিতে পারে ক্রিস গেইল তাহলেই আমরা আমাদের টাকার মূল্য ফেরত পেয়ে যাব। আমি শুধু বীরুর কথার সঙ্গে আর একটিই শব্দ যোগ করতে চার এবং দেখতে চাই এরপর থেকে কি হয়। সব মিলিয়ে জিতে ভালো লাগছে। এবার কলকাতা যাওয়ার পালা। যদিও সমস্তটাই নির্ভর করে মুড এবং পরিস্থিতির উপর। পরিস্থিতি এই মুহুর্তে মুশকিল হয়ে আছে। আমি বহু বছর ধরে ভারতে খেলার সুবাদে জানি যে পরস্থিতিটা ঠিক কেমন। আজ সেঞ্চুরি পেয়ে দারুণ খুশি আমি। মোহালিতে এটাই আমাদের শেষ হোম ম্যাচ। এবং এই উইকেটটাকে আমি ভীষণই মিস করতে চলেছি। এখানে কাউকে কিছু প্রমান করতে আসি ন আমি। আমার যা প্রমান করার তা অনেক আগেই আমি করেছি। এখন এখানে আছি শধু আমার নামের পাশে আরও শ্রদ্দা যোগ করতে। কাল আমার মেয়ের জন্মদিন তাই ওর সঙ্গে কিছু সময় কাটাবো আর এই জয়টাকে উপভো করব। আমার নামটা ভুলবেন না”।

suvendu debnath

কবি, সাংবাদিক এবং গদ্যকার। শচীন তেন্ডুলকর, ব্রায়ান লারার অন্ধ ভক্ত। ক্রিকেটের...

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *