অনেক হয়েছে। দয়া করে বিরাট কোহলি এবার ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়কের পদ ছেড়ে দিক। শুধু তিনি নন, তাঁর মতো অনেক ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমী নাকি এটাই চাইছেন – মন থেকে। ট্য়ুইট করে বিরাটকে এই কথা জানিয়েছেন অভিনেতা কমল রশিদ খান। অভিনয় জগতে কেআরকে নামেই বেশি পরিচিত তিনি। কোনও বিষয় পছন্দ না হলে সরাসরি মুখের ওপরই বলতে পছন্দ করেন ঠোঁটকাটা স্বভাবের কেআরকে। কে কি ভাবল, তা নিয়ে কোনওদিন পরোয়া করেন না। মাঝেমধ্য়েই এধরনের বিস্ফোরক মন্তব্য় করে খবরের শিরোনামে উঠে আসেন কেআরকে।

কামাল রসিদ খান

এখানে দেখুনঃ সরব ঋদ্ধি, ধোনি কখন অবসর নেবেন ধোনিকে ঠিক করতে দিন

ভারতীয় ক্রিকেটের অন্দরে কোচ নিয়োগে যে সমস্য়া মাথা চাড়া দিয়ে উঠেছে, তার মূলে আর কেউ নন, বিরাট কোহলিই দায়ী। ড্রেসিং রুমের পরিবেশটা ভারত অধিনায়ক নিজে হাতে করে নষ্ট করেছেন কোচ বদলানোর জন্য়। কারণ, কোচ যেভাবে দলকে খেলাতে চাইছিলেন, তাতে চলতে নারাজ ছিলেন বিরাট। তাঁর মতের সঙ্গে মিলমিশ না হওয়াতেই কোচর দায়িত্ব থেকে সময়ের আগেই নিজে থেকে সরে যেতে হল অনিল কুম্বলেকে। এনিয়ে কোনও তর্কের বিষয় নেই যে বিরাট কোহলির কুম্বলের কোচিং স্টাইল পছন্দ না হওয়ার কারণেই যত বিপত্তি। 

বিরাট কোহলি ও অনিল কুম্বলে

বিরাটের উচিত অধিনায়কত্ব ছেড়ে দিয়ে নিজের ব্য়াটিংয়ে মন দেওয়া। ওটা করলেই উপকারে লাগবে ভারতীয় ক্রিকেটের। হেড কোচ নিয়োগ নিয়ে গত এক সপ্তাহ ধরে যে নাটক চলছে, একের পর এক নতুন অভিযোগ উঠে আসছে – তাতে বিতশ্রদ্ধ কমল। “এক ভিলেন” খ্য়াত বলিউডের এই অভিনেতা ভারত অধিনায়ককে ট্য়ুইটারে উপদেশ দিয়েছেন, ভাই বিরাট, ১০০০% নিশ্চিত হয়ে বলছি, লোকে তোমাকে ভারতীয় দলের অধিনায়ক হিসেবে দেখতে চায় না। তাড়াতাড়ি ইস্তফা দাও।

বিরাট কোহলি

বেশ কয়েক মাস ধরে কোহলিকে উদ্দেশ্য় করে বিস্ফোরক ট্য়ুইট করে চলেছেন কমল। কুম্বলে-কোহলি দ্বৈরথ মিডিয়ার সামনে চলে আসার পর, বিরাটকে নিয়ে আরও বেশি করে আক্রমণ শুরু করেন তিনি। শাস্ত্রীকে কোচ করার পর ইদানিং যা চলছে, তাতেও বিরক্ত কমল। বিরাটকে উপদেশ দিয়েই থেমে থাকেননি তিনি। বিরাট-শাস্ত্রীর জুটি নিয়েও কটাক্ষ করেছেন। এনেছেন আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ। জাহির বোলিং কোচ আর দ্রাবিড় ব্য়াটিং কোচ। তাহলে রবি শাস্ত্রী কি খেলোয়াড়দের চুল কাটবে। আমি নাপিতগিরির কথা বলছি।” 

রবি শাস্ত্রী

এরপরের ট্য়ুইট, তাহলে, এটাই দাঁড়াল, জাহির-দ্রাবিড় কোচিং করাবে, আর শাস্ত্রী কত টাকা এলো আর কত রানে আউট হতে হবে – কোহলিকে খবর পাঠাবে।

আরোও দেখুনঃ কোচের পদে রবি শাস্ত্রীর নিয়োগে ক্ষেপে লাল সেহওয়াগের এই কাছের মানুষটি

এখানেই শেষ নয়, কোচ নিয়োগের দায়িত্বে থাকা ক্রিকেট অ্য়াডভাইজরি কমিটির অন্য়তম সদস্য় সৌরভ গাঙ্গুলিকেও এক হাত নিয়েছেন কমল।ভাই সৌরভ, তুমি যে বললে কয়েকদিন পর কোচের নাম ঘোষণা করা হবে। তাহলে পরের দিনই কেন নাম জানিয়ে দিলে? কত টাকা পেয়েছ ভাই?

সৌরভ গাঙ্গুলি