ভারতের সর্বকালের সেরা অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ায় বিরাটের দলের ভরসা এখন বাংলার ছেলে ঋদ্ধিমান সাহা। প্রতিভাবান হয়েও দলে জায়গা হয়নি ধোনির কারণে। দল বিদেশে খেলতে গেলে তাঁকে রিজার্ভ উইকেট কিপার হিসেবে নিয়ে যাওয়া হতো। একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও সেই ধোনির কারণে জায়গা হচ্ছে না। ধোনির অবসর নিয়ে অনেকে অনেক কথা বললেও ঋদ্ধি নিজে মনে করেন, বিশ্ব ক্রিকেটকে মাহির এখনও অনেক কিছু দেওয়ার আছে। আর ধোনি কখন অবসর নেবেন, সেটা যেন ধোনিকেই ঠিক করতে দেওয়া হয়। কারণ, অবসর নেওয়ার সিদ্ধান্তটা সম্পূর্ণ ব্য়ক্তিগত।

মহেন্দ্র সিং ধোনি

এখানে দেখুনঃ কাগুজে বাঘ সুপ্রিম কমিটির চালে দ্রাবিড়ের মতো ভদ্রলোকের ভাগ্য়ও শাস্ত্রীর হাতে

বর্তমানে ধোনি নিয়মিত রানের মধ্য়ে নেই। সম্প্রতি ইংল্য়ান্ডে অনুষ্ঠেয় চ্য়াম্পিয়ন্স ট্রফিতে নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি। এটাই কি উপযুক্ত সময় নয় গ্লাভস জোড়া তুলে রাখার? এবিষয়ে বলতে গিয়ে একটি বেসরকারি সংবাদপত্রকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ঋদ্ধি বলেন, একটা খেলোয়াড়ের কেরিয়ারে পারফরম্য়ান্সে তো ওঠা-নামা থাকবেই। তবে, কে কখন অবসর নেবে, ওটা ব্য়ক্তিগত ব্য়াপার।” 

ঋদ্ধিমান সাহা

বাংলার চৌখস উইকেট কিপারটি আরও বলেন,একটা খেলোয়াড় নিজেকে দলের জন্য় কতটা উজাড় করে দিচ্ছে, সেটা দেখতে হয়। দশটা ম্য়াচ খেলল বলে দশটা ম্য়াচেই ভালো পারফর্ম করতে হবে, এমনটা ভাবা ঠিক নয়। কারণ, তা কখনও সম্ভব নয়।

মহেন্দ্র সিং ধোনি

শক্তিগড়ের মতো জায়গা থেকে উঠে আসা ঋদ্ধি ধোনিকে নিজের আইডল হিসেবে দেখেন। বিশেষ করে ক্রিকেট মাঠের বাইরে-ভেতরে ধোনির ওই অলওয়েজ কুল কুল মেন্টালিটিতে মুগ্ধ তিনি। আমরা সবসময়ই আলোচনা করি, ধোনির কিপিং অন্য়দের থেকে কতটা আলাদা। ধোনি সবসময় পজিটিভ কথা বলেন। নেগেটিভ কথা বলতে কখনও শুনিনি আমরা।

মহেন্দ্র সিং ধোনি

আইপিএল ক্রিকেটে চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে খেলেছেন ঋদ্ধি। ধোনির নেতৃত্বেই। ওই সময় নেটে মাহিকে দেখে নিজের ব্য়াটিংয়ের খামতিটা মেটানোর চেষ্টা করতেন তিনি।

মহেন্দ্র সিং ধোনি

এদিকে, আর কয়েক দিন পরেই বিরাটদের সঙ্গে শ্রীলঙ্কা উড়ে যাবেন ঋদ্ধি। টেস্ট সিরিজ খেলতে। কলকাতায় লাগাতার বৃষ্টির চলায় ভালো করে প্র্য়াক্টিস করতে পারেননি। তবে আশা করছেন, দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার আগে এই ক’দিন চুটিয়ে প্র্য়াক্টিস সেরে নেবেন।

শ্রীলঙ্কার পরেই দক্ষিণ আফ্রিকা আর ইংল্য়ান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ ভারতের। কঠিন প্রতিপক্ষ হলেও দলের পারফরমেন্স নিয়ে আশাবাদী ঋদ্ধি। বলছেন, আমরা ভালোই পারফর্ম করব। আর আমি বাংলা দলের ড্রেসিং রুমে যেমন সাবলীল থাকি, সে রকমই সাবলীল থাকি ভারতীয় দলের ড্রেসিং রুমে।

বিরাট কোহলি নেতা হওয়ায় অনেকে বলছেন, তরুণ নেতা আসায় ভারতীয় দলের মেজাজটা বদলেছে। দলে অনেক তরুণ ক্রিকেটারও এসেছে। তবে, ঋদ্ধির মতে, বয়সের পার্থক্য়টা কোনও ফ্য়াক্টর নয়। আসল খুশি আসে গোটা টিম, টিম গেম খেললে।

বিরাট কোহলি

উল্লেখ্য়, ভারতের জার্সি গায়ে ২৫টি টেস্টে ঋদ্ধির সংগ্রহ  ১০১৩ রান। গড় ৩২.৬৭। ঝুলিতে রয়েছে চারটি অর্ধশতরান। সেঞ্চুরি সংখ্য়া তিন।

ঋদ্ধিমান সাহা