বিশেষ প্রতিবেদন: কলকাতা নাইরাইডার্সের বিরুদ্ধে এলিমিনেটর ম্যাচ খেলতে নামার আগে বড় ধাক্কা খেল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। চোট পাওয়ার জন্য আইপিএলে আর দেখা যাবে না এই পেস বোলারটিকে। হ্যামস্ট্রিং চোটের জন্য তাঁকে আর পাওয়া যাবে না। হায়দরাবাদ দলের কোচ টম মুডি এই কথা জানিয়ে দিয়েছেন। গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে নামার আগে এই দুঃসংবাদ হায়দরাবাদ শিবিরকে অবশ্যই ভোগাবে৷  কোচ মুডি বলেন, ‘আশিস নেহরা টুর্নামেন্টের আর কোন ম্যাচেই খেলতে পারবে না।’ তিনি যোগ করেন, ‘যুবরাজেরও চোট রয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ওর ফিটনেস টেস্ট হবে। ওকে ফিট হয়ে ওঠার সমস্থ সুযোগ দেওয়া হবে। আশা করছি ওকে ফিরে আসবে।’

আইপিএলের সুবাদে ভারতীয় ক্রিকেটের অগ্রগতিতে শঙ্কিত এই দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটারটি

বছর আটত্রিশের নেহরা গতবছরই টি-২০ ফর্ম্যাটে ভারতীয় দলে ফিরে আসেন। তবে ৬ মে পুণের বিরুদ্ধে হোম ম্যাচে হ্যাম স্ট্রিংয়ে চোট পান তিনি। সিটি স্ক্যানের পরে জানা যায় হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পেয়েছেন তিনি। অনেকে মনে করছেন যে, গতবছর পাওয়া চোটই নেহরাকে ভোগাচ্ছে৷চলতি আইপিএলে ভালো ফর্মেই ছিলেন তিনি৷আট ম্যাচে ছ’টি উইকেট নিয়েছিলেন এই ভারতীয় পেসারটি৷

অবশেষে পান্ডিয়া ভাইদের মধ্যে বিবাদের আসল কারণ তুলে ধরলেন মুম্বই ইন্ডিয়ান্স নেতা রোহিত শর্মা

মোড মুডি বলেন, ‘নেহরার চোট এমন যে বয়েসের সঙ্গে সঙ্গে বেড়ে যায়। এই টুর্নামেন্টে ও ভালোই বল করেছে। তবে আমাদের বোঝা উচিত, সব ম্যাচে নেহরাকে পাওয়া যাবে না। ওকে অবশ্যই মাঠে মিস করবো।’ নেহরার অবর্তমানে এখন ভুবনেশ্বর কুমারের ওপরেই বোলিং ব্রিগেডের পুরো দায়িত্ব বর্তাবে৷ এ দিকে, নেহরা ছাড়াও চোটের মধ্যে রয়েছেন যুবরাজ সিংহ ও মুহাম্মদ নবি। যুবরাজ শেষ লিগ ম্যাচে গুজরাতের বিরুদ্ধে খেলতে পারেননি। পরীক্ষার পর বোঝা যাবে এই দুই ক্রিকেটারকে কলকাতা ম্যাচে পাওয়া যাবে কিনা।