চলতি আইলিগ মরসুমে মোহনবাগান নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ড্যারিল ডাফির জোড়া গোলের সুবাদে ২-০ গোলে হারাল শিলং লাজং এফ সিকে। শুক্রবার রবীন্দ্র সরোবরে ম্যাচের উভয় অর্ধেই ডাফির একটি করে গোল মোহনবাগানকে কাঙ্খিত ৩ পয়েন্ট এনে দেয়।

উভয় দলই নিজেদের প্রথম ম্যাচের প্রধান একাদশ থেকে দুটি পরিবর্তন ঘটায়। মোহনবাগান দলে গত ম্যাচে লাল কার্ডের জেরে ডিফেন্ডার শুভাশিস বোস সাসপেণ্ড থাকায়, এদিন মাঠে নামেন শৌভিক ঘোষ। এছাড়া মোহনবাগানের অপর পরিবর্তনটি ছিল কিন লিউসের বদলে রেনিয়ার ফার্নান্ডেজ।

অন্যদিকে, শিলং লাজং এফ সি দলে জদিংলিয়ানা রালটে এবং এশিয়ের দিপান্ডা জায়গা করে নেন রিদীম তিয়াং এবং হার্ডি ক্লিফের পরিবর্তে।

ম্যাচের ২১ মিনিটের মাথায় কিংশুক দেবনাথের অসাধারণ লম্বা এরিয়াল পাস থেকে মোহনবাগানের হয়ে বুদ্ধিদীপ্ত গোল করেন ডাফি। ৩২-বছরের স্কটিশ স্ট্রাইকারের এটাই ছিল মোহনবাগানে নিজের প্রথম গোল।

এরপর লাজং-এর বিপিন সিং এবং ফ্যাবিও পিনা খুব কাছ থেকে গোলের সুযোগ নষ্ট করেন। শেষপর্যন্ত প্রথমার্ধ শেষে মোহনবাগান ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে থাকে।

দ্বিতীয়ার্ধের একদম শুরুতেই গোলের কাছ থেকে নেওয়া লাজং ফরোয়ার্ড দিপান্ডার হেডার লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। এরপর মোহনবাগানও বেশ কিছু সুযোগ নষ্ট করে।

তবে ৭৭ মিনিটে মোহনবাগানের হয়ে ম্যাচের ব্যবধান বাড়ান সেই ডাফিই। প্রণয়ের ক্রস বলবন্তের কাছে এলে, ভারসাম্যহীন অবস্থায় বলবন্ত কোনোমতে তা ডাফির দিকে ঠেলে দেন। আনমার্কড ডাফির কাছে সেই বলটি জালে ঠেলতে কোনো বেগ পেতে হয়নি।

চলতি আইলিগ মরসুমের প্রথম ম্যাচে চার্চিল ব্রাদার্সকে ১-০ ব্যবধানে হারানোর পর, দ্বিতীয় ম্যাচে এই জয় নিঃসন্দেহে বাগানকে মানসিক ভাবে চাঙ্গা করবে। আইলিগের শুরুতেই ৬ পয়েন্ট তুলে নিয়ে বাকি দলগুলির কাছে এক কঠিন বার্তা দিয়ে গেল ২০১৪-১৫-র আইলিগ চ্যাম্পিয়নরা।

অন্যদিকে প্রথম ম্যাচে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ব্যাঙ্গালুরু এফ সি-র কাছে ৩-০ ব্যবধানে হারার পর দ্বিতীয় ম্যাচেও মোহনবাগানের কাছে ২-০ গোলে এই পরাস্ত হওয়াতে শিলং লাজং এফ সি-র মনোবল শুরুতেই এক বিশাল ধাক্কা খেল বলা যায়।

দিনের অন্য আরেক ম্যাচে, আইজল এফ সি নিজেদের ঘরের মাঠে ১-০ ব্যবধানে হারাল আইলিগের নতুন দল মিনার্ভা পাঞ্জাব এফ সিকে। ম্যাচের একেবারে অন্তিম মুহুর্তের ইনজুরি টাইমে লাভডে এনায়নায়ার আত্মঘাতি গোলে মিনার্ভা পাঞ্জাব এফ সি ১-০ ব্যবধানে আত্মসমর্পন করে আইজল এফ সি-র কাছে।

মিনার্ভা পাঞ্জাব এফ সি-র পরবর্তী ম্যাচ মোহনবাগানের বিরুদ্ধে আগামী ১৭ই জানুয়ারিতে।