আমেরিকার অন্যতম জনপ্রিয় ও অর্থকরী ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ডব্লিউ ডব্লিউ ই আপাতত বিশ্বের বাকি খেলাকে জনপ্রিয়তার নিরিখে অনেকটা পিছনে ফেলে এগিয়ে চলেছে। সুযোগ পেলেই বিশ্বের আট থেকে আশি বসে পড়ছেন নিজেদের প্রিয় রেসলারের কুস্তি দেখতে।তবে সাম্প্রতিক অতীতে জনপ্রিয় এই খেলা নিজের শালীনতার সীমা ছাড়িয়ে গেল।এই প্রতিযোগিতার সুন্দরী কুস্তিগীর এভা মারিয়ের। তাঁর মাথায় লাল চুলের জন্য তাঁকে ‘রেড হেড’ বলে ডাকা হয়। ডব্লিউ ডব্লিউ ই তে লড়াই করলেও অন্য মহিলা কুস্তিগীরদের মতো এভার মারিয়েরের চেহারা খুববেশি পেশিবহুল নয়।এভার সৌন্দর্যের সঙ্গে সুঠাম শরীরের গঠন বার বারই আকর্ষণ করে ডব্লিউ ডব্লিউ ই সমর্থকদের। কিন্তু, এভাবে ডব্লিউ ডব্লিউ ই আসরে তাঁকে লজ্জায় পড়তে হবে, তা তিনি কল্পনাও করে উঠতে পারেননি।লড়াই চলাকালিন এভারের পোশাক খুলে নিলেন আর এক মহিলা প্রতিযোগি।যার ফলে লজ্জায় মাথা নীচু করে রিং ছাড়তে বাধ্য হলেন এই মহিলা কুস্তিগীর।একই সঙ্গে রেফারিও সেই ম্যাচ বন্ধ করে দিলেন অনির্দিষ্টকালের জন্য।

পোশাক খুলে নেওয়ার একাধিক ঘটনা এর আগে বহু ঘটেছে ডব্লিউ ডব্লিউ ই আসরে। সেই সব ঘটনাগুলি ঘটতে দেখা গিয়েছে লড়াই-এর শেষমুহূর্তে।কিংবা চূড়ান্ত মারপিটের সময়ে। কিন্তু সেখানেও কাউকে অর্ধনগ্ন করে দিতে দেখা যায়নি। একে অপরের পোশাক টানাটানি করেছেন ডব্লিউ ডব্লিউ ই-এর কুস্তিগীররা। সে মহিলা হোন বা পুরুষ প্রতিযোগী, কেউই সেই অর্থে লড়াইয়ে নিজের সীমা অতিক্রম করেননি।তবে এবারে এভার সঙ্গে রিংয়ে যা হল, সেটাকে খেলা না বললেও চলে। বরং এটাকে নোংরামোই বলা যেতে পারে।

 

সাদা কোটে এবং লাল অন্তর্বাসে তখন ডব্লিউ ডব্লিউ ই রিংয়ে মনমোহিনী হয়ে ওঠেছেন এভা। চারিদিকে শুধুই তাঁর নামের গর্জন। সাদা কোট খুলে রিং-এ অবতীর্ণ হলেন এভা। তৈরি প্রতিপক্ষ। হিংস্র বাঘের মতো সে এভাকে যেন অপেক্ষা করছিলেন রিংয়ের মধ্যে। কুস্তি করতে নামা এভার বোধ হয় এ সব খেয়াল ছিল না। কিছু বুঝে ওঠার আগেই তাঁর শরীরের উপর ঝাপিয়ে পড়ে প্রতিপক্ষ মহিলা কুস্তিগীর। মুহূর্তের মধ্যে সে ছিঁড়ে ফেলে দেয় এভার শরীরের ঊর্ধ্বাংশের পোশাক। তখন অর্ধনগ্ন হয়ে পড়ার পরিস্থিতি এভার। লড়াই ছেড়ে কোনওমতে বুকের খুলে পড়া পোশাক হাত দিয়ে চেপে ধরে লজ্জা ঢাকার চেষ্টা করে যাচ্ছিলেন এভা। পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে রেফারিও তাড়াতাড়ি একটি সাদা কাপড় এনে এভার শরীরের ওপরের অংশ ঢেকে দেন। ঠিক তখনই কোনওমতে রিং থেকে বেরিয়ে আসেন ডব্লিউ ডব্লিউ ই র এই রূপসী কুস্তিগীরটি।

Image result for eva marie wardrobe manipulation

এমন পরিস্থিতিতে চারিদিকে রীতিমতো হইচই পড়ে যায়। স্টেডিয়ামের দর্শকরাও সেই সময় উত্তেজিত হয়ে পড়েন। পরে ডব্লিউ ডব্লিউ ই তরফ থেকে জানানো হয়, ওটা ছিল নিছক খেলা মাত্র। মজা করেই এভার বুক থেকে কাপড় ছিনিয়ে নেওয়ার অভিনয় করেছেন লড়াইয়ে তাঁর প্রতিপক্ষ। এভার বুকের পোশাক ওই লড়াইয়ের মধ্যে খুলে নেওয়া হবে, সেটা নাকি আগে থেকেই ঠিক করে রেখেছিল ডব্লিউ ডব্লিউ ই কর্তৃপক্ষ।যদিও এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়িয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ডব্লিউ ডব্লিউ ই কর্তৃপক্ষের এহেন পরিকল্পনা নিশ্চিতভাবে খেলাধুলার মান মর্যাদা মাটিতে মিশিয়ে দিচ্ছে বলে সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইটে সমালোচনার ঝড় তুলেছেন বিশ্বের রেসলার ভক্তরা।